কুয়ো খুঁড়তে গিয়ে মিলল ৫০০ কিলোর নীলা, দাম প্রায় ৭৫ কোটি টাকা!

বাড়িতে জলের জোগান চাই। তাই চলছিল কুয়ো খোঁড়ার কাজ। এমন সময়ে কিছুটা গভীরে বড় পাথরের চাঁইতে আটকে গেলেন খোদাই করা কর্মীরা। ভাল করে খুঁড়তেই দেখা গেল বিশালাকার একটি পাথর।

বের করে এনে জল দিয়ে ধুতেই বোঝা গেল, যে সে পাথর সেটি নয়। বিশেষত বাড়ির মালিক নিজেই রত্ন ব্যবসায়ী। দেখে বুঝতে বেশি সময় লাগেনি তাঁর। কুয়ো খুড়তে গিয়ে নীলা খুঁজে পেলেন তিনি।

শ্রীলঙ্কার রতনপুরের নামেই রত্ন। আসলে প্রায়শই এখানে মাটির নীচে রত্নের সন্ধান মেলে। এক্ষেত্রেও তেমনটাই ঘটল। এই বিশালাকার নীলার ওজন প্রায় ৫১০ কিলোগ্রাম। আনুমানিক বাজারমূল্য ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ৭৫ কোটি টাকা)।

এ বিষয়ে সঙ্গে সঙ্গে প্রশাসনের কাছে খবর দেন বাড়ির মালিক। তিনি বলেন, এখনই এই পাথর ব্যবহার করা বা বাজারে বিক্রি করা যাবে না। এর জন্য রয়েছে পরিস্কার করে নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে কাটিংয়ের প্রক্রিয়া। তারপর সেটি যাচাই করে সার্টিফিকেট দেওয়া হবে। তবেই তা বিক্রি করা যাবে বাজারে।

এটিই বিশ্বের বৃহত্তম নীলা, মনে করছেন অনেকে। এর নাম রাখা হয়েছে Serendipity Sapphire । ইতিমধ্যেই বিভিন্ন আন্তর্জাতিক রত্ন সংক্রান্ত ম্যাগাজিনে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *