অভুক্ত পাগলদের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন এক তরুণ

মানবিকতাবোধ আমাদের সমাজ থেকে এখনো শেষ হয়ে যায়নি। কিছু বিষয়ে মানুষ এখনো অনেক উদার। বিশেষ করে মানসিক ভারসাম্যহীন (পাগল) রাস্তায় থাকা মানুষগুলির খবর কেউ বা রাখে। এমন পাগলদের খুঁজে পরম যতেœ খাওয়ানো কম কথা নয়। বাগেরহাটে দীর্ঘ ১৫ দিন ধরে সেই কাজটি করে যাচ্ছেন এক তরুন।

কারণ স্বভাবিক সময়ে কোন রকমে খেয়ে জীবন ধারন করলেও “লক ডাউনের” সময় ফুটপাতের এসব মানসিক ভারসাম্যহীন থেকে শুরু করে রাস্তার কুকুর পর্যন্ত অভুক্ত রয়েছে। করোনার প্রকোপে তারাও অনাহারে জীবন কাটাচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বাগেরহাট পৌরসভার রাকিবুল ইসলাম রাজ নিজ উদ্দোগে গত ২৪ জুলাই থেকে প্রতিদিন সন্ধায় বাগেরহাট পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডে খুজে খুজে ২০ জন মানসিক ভারসম্যহীন মানুষের কাছে খাবার পৌছে দেন। কখনোও চিকেন বিরিয়ানি, খিচুরি, ডিম, সাদাভাত দেওয়া হচ্ছে এসকল মানসিক ভারসম্যহীনদের।

এ দিকে রাকিবুল ইসলাম রাজের এ ধরনের ব্যতিক্রমী উদ্দোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সমাজের বিভিন্ন শ্রেনীর সচেতন নাগরিক। তারা দেশের তরুন সমাজকে রাজের মত এধরনের মানবতার জন্য কাজ করার আহবান জানান।

এ বিষয়ে রাকিবুল ইসলাম রাজ জানান, সাধারন একজন ব্যক্তি কষ্টে, অনাহারে থাকলে মানুষকে বলতে পারে কিন্তু মানসিক ভারসম্যহীন যারা তারা তো কাউকে বলতে পারে না ।

আর লকডাইনে অনেকেই অনাহারে থাকে সেই বিষয় বিবেচনা করেই প্রতিদিন পৌরসভার ২০জন পাগলকে খাবার পৌছে দেওয়ার জন্য আমার এ উদ্দোগ। তিনি বলেণ যতদিন পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত এই খাবার বিতরণ চালু রাখবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *