বয়সটা নিয়ে বেশি ভাবতে হয়েছে: মিথিলা

দেশের জনপ্রিয় তারকা রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। অভিনেত্রী তকমার পাশাপাশি তিনি একজন মডেল, গায়িকা ও সমাজকর্মী। প্রথমবারের মতো কলকাতার সিনেমায় অভিনয় করলেন। ‘মায়া’ সিনেমার লুক প্রকাশ্যে আসার পর তাকে ঘিরে দর্শকের প্রত্যাশা বেড়েছে। ওপার বাংলার সিনেমায় অভিনয়ের অভিজ্ঞতা ও বর্তমান ব্যস্ততা নিয়ে আরটিভি নিউজের সঙ্গে একান্তে কথা বললেন মিথিলা। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন নিয়াজ শুভ

বর্তমানে কোথায় আছেন, কী করছেন?
মিথিলা: এই মুহূর্তে মুম্বাই আছি। সৃজিতের কাজের জন্য এখানে কিছুদিন থাকতে হবে। এর মধ্যেও হোম অফিস করতে হচ্ছে। পাশাপাশি আইরার লেখাপড়া দেখছি।

‘মায়া’র জার্নিটা কেমন ছিলো?

মিথিলা: এখানে (কলকাতায়) প্রথম কাজের অভিজ্ঞতা ভীষণ ভালো। তারা খুবই পেশাদার ও দক্ষ টিম। সিনেমার গল্প এবং আমার চরিত্র দুটোই দূর্দান্ত। মায়াকে তিনটি ভিন্ন বয়সে দেখা যাবে। ‘মায়া’র পরিচালক রাজর্ষি দে এবং শিল্পী-কলাকুশলীরা এতোই বন্ধুসুলভ ছিলো যে, মনেই হয়নি প্রথম কাজ করছি।

তিনটি ভিন্ন বয়সে নিজেকে তুলে ধরতে কোনো প্রতিবন্ধকতায় পড়েছিলেন?

মিথিলা: আমার অভিনয়, বাচনভঙ্গী, ভাষা, লুক সবই পরিবর্তন করতে হয়েছে। বিশেষ করে পরিণত বয়স- যেখানে আমাকে পঞ্চাশের ঘরে দেখা যাবে, সেই বয়সটা নিয়ে বেশি ভাবতে হয়েছে। কেননা মায়া একটি বিশাল সংগ্রামের জীবন পার করেছে। সেই দৃঢ়তা চরিত্রে ফুটিয়ে তোলাটা ভীষণ জরুরি ছিলো। এমন শক্তিশালী নারী চরিত্রে অভিনয় করাটা বেশ চ্যালেঞ্জিং। আশা করছি, সিনেমাটি দর্শকদের ভালো লাগবে।

নতুন সিনেমার বিষয়ে কী ভাবছেন?
মিথিলা: নতুন সিনেমার বিষয়ে কথা হচ্ছে। কিন্তু এখনই বলার মতো নয়। এই মহামারি সময়ে কোনো কিছুই বলা যাচ্ছে না। যেকোনো সময় পরিস্থিতি পরিবর্তন হতে পারে।

সিনেমায় কী আপনাকে নিয়মিত পাওয়া যাবে?
মিথিলা: ভালো স্ক্রিপ্ট পেলে, ভালো চরিত্র পেলে অবশ্যই নিয়মিত কাজ করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *