পরীমণির মুক্তি চাইলেন ঢাবি অধ্যাপক

পরীমণিসহ গ্রেফতারকৃত তারকারা কোনো আন্ডারগ্রাউন্ডের গডফাদার না বলে দাবি আ. ক. ম. জামাল উদ্দীনের। ছবি: অধ্যাপক জামাল উদ্দীন ও পরীমণি।

আলোচিত নায়িকা পরীমণি ও গ্রেফতারকৃত অন্যান্য তারকাদের মুক্তি দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এবং মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আহ্বায়ক আ. ক. ম. জামাল উদ্দীন। গ্রেফতারকৃত তারকারা কোনো আন্ডারগ্রাউন্ডের গডফাদার না বা মারাত্মক কোনো অপরাধের সাথে জড়িত না বলে দাবি এই বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকের।

বুধবার (১১ আগস্ট) তিনি যমুনা নিউজকে এসব কথা বলেন। তিনি উল্লেখ করেন, বড় বড় অপরাধী বা জঙ্গিদের ধরার জন্য পুলিশ যেভাবে রাতদিন এক করে, সেভাবেই তারকাদের গ্রেফতার করছে, এটা বাংলাদেশের শিল্পাঙ্গনকে ধ্বংস করার একটি পাঁয়তারা।

সমাজবিজ্ঞানের এই শিক্ষক মনে করেন, প্রশাসনের মধ্যে থাকা ধর্মান্ধ গোষ্ঠী, যারা শিল্প-সংস্কৃতি, নারীর উন্নয়ন, চলচ্চিত্র, রিয়েলিটি শো ইত্যাদির বিপক্ষে, তারা কৌশলে চলচ্চিত্র ও শিল্পাঙ্গনকে ধ্বংস করার চেষ্টা করছে।

এছাড়াও পরীমণিসহ অন্যান্যদের মুক্তির বিষয়ে ফেসবুকে জামাল উদ্দীন লিখেছেন, চিত্রনায়িকা পরীমণিসহ গ্রেফতারকৃত সব শিল্পী কলাকৌশলীর অবিলম্বে মুক্তি দিন। স্ট্যান্ড ফর পরীমণি।

৪ আগস্ট আলোচিত এই নায়িকাকে বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‍্যাব। এর আগে থেকেই নানা কারণে আলোচিত-সমালোচিত ঢাকাই ছবির এ নায়িকা। গত ১৪ জুন সাভার থানায় তার করা ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিনসহ কয়েকজনকে আটক করে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।

১৩ জুন রাতে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক পোস্টের মাধ্যমে পরীমণি এই বিষয়ে প্রথম সরব হন ও প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন। পরে তার নিজ বাসায় সাংবাদিকদের সামনে এ ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরেন। বিষয়টি দেশজুড়ে আলোড়ন তৈরি করে। পরে পরীমণির বিরুদ্ধেও একাধিক ক্লাবে গিয়ে বিশৃঙ্খলার অভিযোগ ওঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *