সৃজিতই প্রথম আমাকে দেন : বাঁধন

ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারজয়ী পরিচালক সৃজিত মুখার্জির একটি ওয়েব সিরিজ মূখ্য চরিত্রে অ’ভিনয় করেছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অ’ভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন।

সিনেমা’র নাম – ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেননি’।আগামী ১৩ আগস্ট ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হইচই-তে মুক্তি পাচ্ছে ওয়েব সিরিজটি।

কীভাবে এই সিরিজটির সঙ্গে যুক্ত হলেন বাঁধন? সৃজিতের সঙ্গে যোগাযোগ হলো কিভাবে? দেশের আরেক জনপ্রিয় অ’ভিনেত্রী রাফিয়াত রাশিদ মিথিলার মাধ্যমেই কি সৃজিতের সঙ্গে যোগাযোগ বাঁধনের?

বাধঁন জানালেন, নাহ, সেভাবে নয়, ফেসবুক মেসেঞ্জারে সৃজিত নক করেছিলেন তাকে। এরপরও বি’ষয়টি নিয়ে কথা আগায়। এর আগে সৃজিতের সঙ্গে আগে তার পরিচয় ছিল না বা কখনোই কথা হয়নি বলে জানান বাঁধন।

বলেন, হঠাৎ সোশ্যাল মিডিয়ায় আমাকে মেসেজ পাঠান সৃজিত। আমি প্রথমে ভেবেছিলাম সৃজিতের নাম করে কোনো ফেক আইডি থেকে এমন মজা করছে। তার মতো একজন পরিচালক কেনই বা তার সিরিজে আমাকে নেবেন? তবে ধীরে ধীরে বি’ষয়টা পরিষ্কার হয়ে যায় এবং বুঝতে পারি ঘটনা সত্যি।’

সৃজিত মুখার্জির প্রশংসায় বাঁধন বলেন, ‘গল্পের চরিত্রটা আ’ত্মস্থ করতে সৃজিত আমাকে ভীষণভাবে সাহায্য করেছেন। একজন ভাল পরিচালক, অ’ভিনেতার থেকে সেরাটা বের করে নেন। আমি তাই পুরোটাই বিশ্বা’স করেছি সৃজিতের ওপর। কলকাতায় যখন ছিলাম, তখন ঘণ্টার পর ঘণ্টা সৃজিত আমা’র সঙ্গে রিহার্সাল করেছেন।’

এই ওয়েব সিরিজে কাজের ক্ষেত্রে সৃজিত মুখার্জি প্রধানতম কারণ বলে জানিয়েছেন বাঁধন। এছাড়া মুসকান জুবেরির চরিত্রে অ’ভিনয়ের লোভটাও সাম’লাতে পারেননি অ’ভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত, ‘রবীন্দ্রনাথ এখানে কখনো খেতে আসেননি’ সিরিজটি নির্মিত হয়েছে বাংলাদেশি লেখক মোহাম্ম’দ নাজিম উদ্দিনের লেখা একই নামের উপন্যাস অবলম্বনে। থ্রিলার ধাঁচের এই গল্পে মুসকান জুবেরির চরিত্রে অ’ভিনয় করেছেন বাঁধন। আরও অ’ভিনয় করেছেন কলকাতার জনপ্রিয় অ’ভিনেতা অনির্বাণ ভট্টাচার্য, অঞ্জন দত্ত, অনির্বাণ চক্রবর্তী, রাহুল বোস প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *