যুক্তরাষ্ট্রে মৌসুমী, ঢাকায় ওমর সানি: বউ নিয়ে মালদ্বীপে হানিমুনে ছেলে!

দাম্পত্য জীবনের উদাহরণ হয়ে আছেন ঢালিউড জনপ্রিয় তারকা জুটি ওমর সানি-মৌসুমী।তাদের

এক পুত্র ফারদিন এহসান স্বাধীন ও কন্যা ফাইজা। চলতি বছরের ২৬ মার্চ বিয়ে করেছেন তারকা দম্পতি ওমর সানি-মৌসুমির ছেলে স্বাধীন। তাঁর স্ত্রী কানাডা প্রবাসী সাদিয়া রহমান আয়েশা।

গত ১৪ অক্টোবর মেয়ে ফাইজাকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। একমাত্র মেয়ে ফাইজা

যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক। আগামী ২৯ অক্টোবর তার ১৮ বছর পূর্ণ হবে। এরপর সে নাগরিক হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের আইডি কার্ড এবং অন্য কাগজপত্রের জন্য আবেদন করতে পারবে। মূলত সে কাজটি করার জন্যই মেয়েকে নিয়ে সেখানে যুক্তরাষ্ট্রে গেছেন মৌসুমী।

মৌসুমীর স্বামী ওমর সানী গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, প্রায় ২০ দিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকবেন মৌসুমী। এই সময়টায় মেয়ের আইডি কার্ডসহ কাগজপত্রের জন্য আবেদনের পাশাপাশি তাকে সেখানকার বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির বিষয়ে খোঁজ-খবর নেবেন। এছাড়া সেখানে বসবাস করা মা-বোনসহ অন্য আত্মীয়দের সঙ্গে সময় কাটাবেন।

ওমর সানী আরও জানান, তার নিজেরও এই সময় স্ত্রী-কন্যার সঙ্গে যাওয়ার ইচ্ছা ছিল। কিন্তু ভিসা জটিলতায় তিনি যেতে পারছেন না। ফলে আগামী ৩ নভেম্বর মৌসুমীর জন্মদিনেও পাশে থাকা হবে না তার। যুক্তরাষ্ট্রে মেয়ে এবং অন্য আত্মীয়দের সঙ্গে এবারের জন্মদিন পালন করবেন মৌসুমী।

বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছেন ওমর সানী। তবে এরইমাঝে একমাত্র ছেলে ফারদীনকে দেখা গেল মালদ্বীপে। না একা নন, রীতিমতো মধুচন্দ্রিমায় গিয়েছেন ফারদীন ও তাঁর স্ত্রী আয়েশা। ফারদীন বিষয়টি নিয়ে তেমন প্রকাশ্য না হলেও আয়েশা নিজের ইনস্টাগ্রামে ধারাবাহিক ছবি প্রকাশ করেছেন। সেখানেই মালদ্বীপে, সমুদ্র ধারের রিসোর্টে বিভিন্ন মুহূর্ত ধরা পড়েছে।

আয়েশা নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে প্রথমে একটি ভিডিও পোস্ট করেছিলেন। সেখানে মুখ দেখা না গেলেও বোঝা যাচ্ছিল তিনিই আয়েশা। এরপর বেশ কয়েকটি একক ছবি প্রকাশ করেন ও ফারদীনের সঙ্গে একটি ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের দ্বৈত ছবি প্রকাশ করেছেন।

নেটিজেনরা এরি ছবি থেকেই নানা মন্তব্য জুড়ে দিচ্ছেন, যার অধিকাংশ অর্থই হলো-রোমান্টিক মুহূর্ত বেশ ভালোই কাটাচ্ছেন ফারদীন ও আয়েশা। অবশ্য গত মাসের। অর্থাৎ সেপ্টেম্বরে ছিল আয়েশা ও ফারদীনের মালদ্বীপে মধুচন্দ্রিমা সফর।

বিয়ের কয়েক মাস আগে ফারদীনের সঙ্গে পরিচয় হয় আয়েশার। পরিচয় থেকে বন্ধুত্ব, ভালো লাগা। সেই ভালো লাগার সূত্র ধরেই দুই পরিবারের অলোচনায় ঠিক হয় বিয়ের সিদ্ধান্ত। চলতি বছরের মার্চেই বিয়ে হয় আয়েশা ও ফারদীন এহসান স্বাধীনের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *