জেদ করেই নায়িকা হয়েছি: পূজা চেরী

বছর দশেক আগের ঘটনা। শিশুশিল্পী হিসেবে টুকটাক মিডিয়াতে কাজ করতেন পূজা চেরী। সেই সুবাদে একবার এক সিনেমায় ছোট দৃশ্যে অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছিলেন।

একজন গুণী নির্মাতার সিনেমায় দুটি দৃশ্যে অভিনয়ের সুযোগ পেলেও মুক্তির পর পুরো সিনেমায় কোথাও দেখা যায়নি পূজাকে। তখন সিনেমা হলে বসে মন রাখাপ করেছিলেন পূজা। মনের মধ্যে জেদও চাপে। সেই জেদই আজকে পূজা চেরীকে নায়িকা বানিয়েছে।

চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে আলাপে সিনেমার নায়িকা হওয়ার প্রসঙ্গ টানতেই পূজা এমন গল্প শোনালেন। বললেন, পরিচালকের নাম জানাতে চাইনা।

সেসময় আমি ছোট থাকলেও এই ঘটনা স্পষ্ট মনে আছে। মায়ের সঙ্গে সিনেমা হলে বসে সেই ছবিটি দেখতে গিয়েছিলাম। কিন্তু আমার দৃশ্যটি মূল সিনেমায় বাদ দেয়া হয়েছিল।

পূজা চেরী বলেন, তখন প্রচণ্ড কষ্ট পেয়েছিলাম। খুব কেঁদেছিলাম। আমার মা শুরু থেকে আমাকে সাপোর্ট দিয়েছেন। সেও ভীষণ মন খারাপ করেছিল। তখনই মনে মনে জেদ চেপেছিল,

আমি একদিন দেখিয়ে দেব। সেই জেদই আমাকে নায়িকা বানিয়েছে। এখন মনে হয় মাঝেমধ্যে এমন জেদ করা ভালো। সেদিন যদি জেদ না করতাম আজ এখানে আসতে পারতাম না।

শিশুশিল্পী হিসেবে সিনেমায় নজর কাড়তে না পারলেও রিন ডিটারজেন্টের এক বিজ্ঞাপন পূজাকে আলোচনায় আনে। পরে জাজ মাল্টিমিডিয়ার ‘নূর জাহান’ সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে ২০১৮ সালে নায়িকা হিসেবে অভিষিক্ত হন পূজা।

একই বছর ‘পোড়ামন ২’, ‘দহন’ নামে আরও দুটি সিনেমা করেন তিনি। এগুলোর মাধ্যমে পূজাকে নায়িকা হিসেবে সবার কাছে পরিচিতি এনে দেয়। বর্তমানে ঢাকাই সেরা নায়ক শাকিব খানের বিপরীতে ‘গলুই’ সিনেমাতে নায়িকা হিসেবে কাজ করছেন পূজা।

তিনি বলেন, আমাকে শুরুতে গল্প শোনানো হয়েছিল। তখনও জানতাম না গলুই সিনেমার নায়ক শাকিব খান। গল্প শুনে আমার ভীষণ ভালো লাগে। কাজটি করতে রাজি হই। পরে যখন শুনি শাকিব খান আমার নায়ক হবেন আমার তো খুশীর সীমা ছিল না! সেই ছোট থেকে দেখেছি উনি কীভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। ১০ বছর পরও এসে মনে হচ্ছে উনি আগের চেয়ে আরও ইয়াং হয়েছেন। কাজ করতে গিয়ে একটা বারও মনে হয়নি উনি এতো বড় মাপের তারকা। বরং আমি চুপচাপ থাকলে উনি জিজ্ঞেস করতেন আমার মন খারাপ কিনা। একমাসের বেশী সময় ধরে তার সঙ্গে কাজ করে মনে হয়েছে, সবার চেয়ে শাকিব খান বেস্ট।

সিয়ামের বিপরীতে ‘পূজা’ অভিনীত শান মুক্তি পাচ্ছে ৭ জানুয়ারি। এর আগে মুক্তির কথা থাকলেও করোনার কারণে আটকে যায়। এই সিনেমাটি নিয়েও বেশ উচ্ছ্বাসিত পূজা। তিনি বলেন, ঢাকার বাইরে শুটিংয়ে থাকায় ছবিটি টিমের সবার সঙ্গে বসে দেখতে পারিনি। অন্যরা দেখে আমাকে জানিয়েছে দারুণ হয়েছে। ভীষণ আশাবাদী কাজটি নিয়ে।পূজার আরও সিনেমা অনন্য মামুনের সঙ্গে সাইকো, সৈকত নাসিরের মাসুদ রানা, ইস্পাহানী আরিফ জাহানের পরিচালনায় হৃদিতা মুক্তির অপেক্ষায়। তিনি বিশ্বাস করেন, সিনেমাগুলো দর্শকদের ভালো লাগার মতো। ভিন্ন ভিন্ন জনরায় তৈরি হয়েছে। এসব সিনেমাগুলো ধীরে ধীরে মুক্তি পেলে তার ক্যারিয়ার যেমন আগাবে, অভিনেত্রী হিসেবে তিনি আরও পরিণত হতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *